1. admin@bd24voice.com : BD24VOICE.COM : BD24 VOICE
  2. bd24voice@hotmail.com : BD 24 VOICE : BD 24 VOICE
  3. tusher719@gmail.com : BD 24 VOICE : BD 24 VOICE
  4. khandakarabusufian1994@gmail.com : BD 24 VOICE : BD 24 VOICE
শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০১:৩০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কিশোরগঞ্জ জেলা আঃ লীগ নেতা আনোয়ার কামালকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে স্থানান্তর কাঠ মোল্লাদের একাল সেকালের ফতোয়া – মুন্সি জাকির হোসেন জাতিসংঘে মাদক তালিকা থেকে বাদ গাঁজা এবং ওষুধ তৈরির অনুমতি ইন্টারপোলের রেড নোটিশঃ করোনা ভাইরাসের নকল ভ্যাকসিন বিক্রি হতে পারে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড ১৭ জন ভারতীয়কে আটক করেছে কিশোরগঞ্জ ও কুলিয়ারচর পৌরসভা নির্বাচন আগামী ১৬ জানুয়ারি ডেঙ্গু জ্বরে কিশোরগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সম্পাদিকার মৃত্যু কিশোরগঞ্জ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত যুবলীগের সাথে এক মিনিট লড়ার ক্ষমতা মামুনুল হকের নেই – নিক্সন চৌধুরী বাংলাদেশি কয়েকজন নাবিকদের জিম্মি করেছে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা

মঙ্গল গ্রহের মাটির নিচে ৩টি পানির হ্রদ আবিষ্কারের দাবি করেছে নাসার বিজ্ঞানীরা

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১৭০ বার পড়া হয়েছে

ব্রহ্মাণ্ড এক রহস্যময় জগৎ আর সেখানে রহস্যময় গ্রহগুলোর মধ্যে পৃথিবীর কাছের গ্রহ মঙ্গল নিয়ে রহস্য ও কৌতুহল সবচেয়ে বেশি বিজ্ঞানীদের গবেষণার তথ্যে।

এবার সেই রহস্য ও কৌতুহলের মাত্রায় এসেছে নতুন গতিবেগ যা নিয়ে পৃথিবীতে ব্রহ্মাণ্ড প্রেমীদের নজর এখন মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার দিকে। ব্রহ্মান্ডের লাল রহ মঙ্গলে পাওয়া গিয়েছে পানির উৎস এমনটাই দাবি করেছে মার্কিন গবেষণা সংস্থা নাসার বিজ্ঞানীরা।

রহস্যময় মঙ্গল গ্রহে মাটির নিচে তিনটি হ্রদ আবিষ্কার করেছেন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার বিজ্ঞানীরা এমনটাই দাবি করেছেন। অবশ্য দুই বছর আগেও মঙ্গল গ্রহের দক্ষিণ মেরুতে এক বিরাট নোনা হ্রদের হদিশ পাওয়া গিয়েছিল। এই হ্রদটি বরফের নিচে চাপা পড়ে আছে।

অর্থাৎ ভবিষ্যতে মঙ্গল গ্রহে বসবাস করতে হলে এই পানি কাজে লাগানো যেতে পারে বলে ধারণা করছেন মহাকাশ গবেষণায় নিয়োজিত বিজ্ঞানীরা। ইউরোপীয় স্পেস এজেন্সি ২০১৮ সালে স্পেসক্রাফট মার্স এক্সপ্রেস এমন একটি জায়গা আবিষ্কার করে যেখানে বরফের নিচে লবণাক্ত পানির হ্রদ রয়েছে বলে দাবি করা হয়। রহস্যময় মঙ্গল গ্রহে ২০১২ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত লবণাক্ত পানির ওই হ্রদের ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়ার জন্য স্যাটেলাইট ২৯ বার মঙ্গলের ওই এলাকাটি প্রদক্ষিণ করে ছবি তুলেছিল। মহাকাশ বিজ্ঞানীরা এরপর জানিয়েছিলেন মঙ্গলের ওই এলাকায় এমন আরও হ্রদ রয়েছে।

সাইন্স মাগাজিনে নেচার অ্যাস্ট্রোনমিতে প্রকাশিত তথ্যে মঙ্গল গ্রহে পানি তরল অবস্থায় পাওয়া যাওয়ার শতভাগ সম্ভাবনা রয়েছে। ২০১৮ সালে যে হ্রদেটি মঙ্গল গ্রহের দক্ষিণ দিকে আবিষ্কার হয়, সেটি বরফ দিয়ে আচ্ছাদিত। এর আয়তন প্রায় ২০ কিলোমিটার প্রশস্ত। এখন পর্যন্ত মঙ্গল গ্রহের পাওয়া সবচেয়ে বৃহৎ হ্রদ এটিই।

রোম বিশ্ববিদ্যালয় জ্যোতিবিজ্ঞানী আলাইনা পেটিনেল্লি জানিয়েছেন, দুই বছর আগে আবিষ্কৃত হ্রদের চারপাশে আরো তিনটি হ্রদের সন্ধান পেয়েছেন। মঙ্গল গ্রহের তরল পাওয়ার পূর্ণ সম্ভাবনা রয়েছে।

মঙ্গলগ্রহকে একটি পানিবিহীন গ্রহ ভাবা হয়েছিল বহু আগেই। কিন্তু বর্তমানে সেই ভুল ধীরে ধীরে ভেঙে যাচ্ছে নিত্যনতুন তথ্য আবিষ্কারের পর থেকে। অবশ্য বিজ্ঞানীরা বহুআগে থেকেই জানিয়েছিল মঙ্গল গ্রহে এক সময় প্রচুর পরিমাণে পানি প্রবাহিত হত।

জলবায়ুতে বড় ধরনের পরিবর্তনের কারণে মঙ্গল গ্রহের সমস্ত রূপ পরিবর্তন হয়েছিল তিন বিলিয়ন বছর আগে এমনটাই বলেছেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা।

মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা ২০১২ সালে কিউরিওসিটি শিলার ৩ মিলিয়ন বছরের পুরনো কার্বনিক অনু খুঁজে পাওয়ার পরে, যা দেখে বিজ্ঞানীরা এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছিল যে, অবশ্যই জীবনের অস্তিত্ব ছিল আমাদের সৌরজগতের কাছের গ্রহ মঙ্গলে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় ইন্টেল ওয়েব