1. bd24voice@hotmail.com : admi2017 :
  2. info@bd24voice.com : BD24 VOICE : BD24 VOICE
রবিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২১, ০৩:০৮ অপরাহ্ন

যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবনে ট্রাম্প সমর্থকদের ভাঙচুর-গুলি, ওয়াশিংটনে কারফিউ

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৭ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১৩০ বার

যুক্তরাষ্ট্রে পার্লামেন্ট ভবন (ইউএস ক্যাপিটল) বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সমর্থকদের বিক্ষোভের আগ্রাসী তাণ্ডবে মুখে অবরুদ্ধ করতে বাধ্য হয়েছে পুলিশ।

 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে জো বাইডেনের জয়ের অনুমোদনের প্রক্রিয়া চলাকালীন সময়ে ট্রাম্প সর্মথকরা বিক্ষোভের নামে আগ্রাসী তাণ্ডব চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবনে।

সংবাদ সংস্থা বিবিসি জানিয়েছে, ইউএস ক্যাপিটলে অধিবেশন চলাকালে হঠাৎ করেই ট্রাম্প সমর্থকদের তাণ্ডব শুরু করে দেয়। এক পর্যায়ে ভাংচুরের পাশাপাশি সেখানে গোলাগুলির শুরু করে ডোনাল্ড ট্রাম্প সর্মথকরা। আগ্রাসী তাণ্ডবের মাঝে গোলাগুলিতে অন্তত একজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে জারি করা হয়েছে কারফিউ।

 

 

যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস অধিবেশনে বিরোধিতা করে বুধবার (৬ জানুয়ারি) ওয়াশিংটনে জড়ো হন কয়েক হাজার ট্রাম্প সমার্থক। সমর্থকদের মধ্যে উগ্রপন্থী বিভিন্ন গ্রুপের সদস্যরাও ছিল। ওয়াশিংটনের রাস্তায় জড়ো হাওয়া হাজারো ট্রাম্প সমর্থকদের উদ্দেশ্যে দেয়া বক্তব্যে গত নভেম্বরে নির্বাচনে পরাজয় মেনে না নেয়ার ঘোষণা দেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

 

 

পার্লামেন্ট ভবনের (ক্যাপিটল ভবন) অল্প দূরত্বেই সমাবেশে জড়ো হয় হাজারো মানুষ সেখানে বক্তব্য রাখছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্পের বক্তব্যের এক পর্যায়ে কয়েকশো সমর্থক ক্যাপিটল ভবনের নিরাপত্তা ব্যারিকেড ভেঙে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে। সংঘর্ষের এক পর্যায়ে কংগ্রেসের অধিবেশন চলার মধ্যেই পুলিশের বাধা ভেঙে ক্যাপিটল ভবনে প্রবেশ করে ট্রাম্প সমর্থকরা। তাদের ছত্রভঙ্গ করতে পেপার স্প্রে ও কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করে নিরাপত্তায় নিয়োজিত পুলিশ।

 

হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভস ( প্রতিনিধি পরিষদ) সদস্যদের কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে অধিবেশন কক্ষ থেকে বাহির করে নিয়ে যায় পুলিশ। ট্রাম্প সমর্থক কয়েকজন আইনপ্রণেতা নির্বাচনের ফল বাতিলের প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা চলার মধ্যেই গোলযোগ সৃষ্টি হয়।

 

ওয়াশিংটনে ট্রাম্প সমর্থকদের এই তাণ্ডবের পরিস্থিতিতে সিনেট অধিবেশন মুলতবি করা হয়। অধিবেশনের সভাপতিত্ব করা ভাইস-প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সকেও কঠোর নিরাপত্তা দিয়ে অধিবেশন কক্ষ থেকে নিরাপদে নিয়ে যায় পুলিশ। অধিবেশন কক্ষে উপস্থিত আইনপ্রণেতাদের আসলে নিচ থেকে গ্যাস মাক্স বের করে পড়ার পরামর্শ দেয় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশ।

 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ভবনের কাছে সমবেত কয়েক হাজার সমর্থকদের উদ্দেশ্য ট্রাম্প বক্তব্য দেয়ার পরই এই তান্ডব পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। ট্রাম্প তার বক্তব্যে পুরনো অভিযোগ তুলে ধরেন। ‌ নির্বাচনে ব্যাপক জালিয়াতির মাধ্যমে তার কাছ থেকে নির্বাচনের বিজয় চুরি করে নেয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডেমোক্রেট রিপাবলিকান দলের নির্বাচন কর্মকর্তা ও নিরপেক্ষ পর্যবেকক্ষণসহ গত ৩ নভেম্বর নির্বাচনে তেমন কোনো জালিয়াতির প্রমাণ পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ট্রাম্পের চেয়ে ৭০ লক্ষেরও বেশি পপুলার ভোট পেয়েছেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন।

 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়-পরাজয় নির্ধারক ইলেক্টোরাল ভোটের হিসাবে বিজয়ী প্রার্থীর জো বাইডেন পক্ষে ভোট পড়েছে ৩০৬টি এর বিপরীতে ট্রাম্পের মাত্র ২৩২টি। পরাজয়ের এক পর্যায়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প বিভিন্ন স্টেটে জালিয়াতির অভিযোগ তুলে প্রমাণ করতে ব্যর্থ হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..